সুজানগর

৪০ বছর ধরে বিএনপির দ্বারা নির্যাতিত আওয়ামী লীগের কর্মী সুজানগরের আব্দুল করিম প্রমানিক

আব্দুল করিম পরামানিক

৪০ বছর ধরে বিএনপির দ্বারা নির্যাতিত আওয়ামী লীগের কর্মী সুজানগরের আব্দুল করিম প্রমানিক

 

শেখ রুবেল আহমেদ

সুজানগর উপজেলা প্রতিনিধি

৪০ বছর ধরে বিএনপি প্রতিবেশী দাঁড়া নির্যাতিত আব্দুল করিম পরামানিক প্রায় চল্লিশ বছর আগে বিএনপির এক প্রতিবেশীর নাম জানে আলম বাড়ির পাশে বাড়ি বানান সুজানগর উপজেলা আহমদ পুর ইউনিয়নের দুর্গাপুর গ্রামের আব্দুল করিম প্রমানিক। তিনি জানান বঙ্গবন্ধু দেশ স্বাধীন করার আগের থেকেই তিনি আওয়ামী লীগ রাজনীতির সাথে জড়িত কিন্তু ৪০ টা বছর হয়ে গেল আমি এখানে বাড়ি করেছি আমার বাড়ি থেকে বের হলে রাস্তায় আসতে গেলে জানে আলমের বাড়ির পাশ দিয়ে আসতে হয় কিন্তু দীর্ঘ ৪০ বছর হয়ে গেল আমি আমার বাড়ি থেকে কখনোই সুস্থ ভাবে বের হতে পারি না কারণ বাড়ি থেকে বের হতে গেলে জানে আলম ও তার পরিবার বিভিন্নভাবে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকে এমনকি যখন বিএনপি ক্ষমতায় ছিল তখন আমাকে বিভিন্নভাবে ভয়-ভীতি দেখিয়েছিল এলাকার মেম্বার এবং চেয়ারম্যান রা বিভিন্ন সময় এটা নিয়ে সালিশ দরবার করে একপর্যায়ে ছোট্ট একটা রাস্তা করে দিয়েছিল কিন্তু আস্তে আস্তে সেই রাস্তাটি দখল করে নিয়েছে জানে আলম ও তার পরিবার। এক সময় জানে আলমের বাবা এই রাস্তাটি বের করে দিয়েছিলেন এবং তখন রাস্তাটি অনেক বড় ছিল বাড়ি থেকে বের হওয়ার জন্য ভ্যান অথবা বিভিন্ন যানবাহন নিয়ে যাওয়া যেত কিন্তু জানে আলম আস্তে আস্তে রাস্তাটি দখল করে নিয়েছে বর্তমান এমন অবস্থা করেছে যে কৃষি কাজ করতে গেলে অনেক সময় ধান এবং পেঁয়াজ নিয়ে বাড়িতে ঢোকার মতো কোন সুযোগ নেই। তাছাড়া বিভিন্ন সময় গরুর গোবর এবং ময়লা পানি যতটুকু জায়গা আছে এতোটুকু ফেলে যাতে আমার বাড়ির লোকজন এই রাস্তা দিয়ে বের হতে না পারে সব সময় সেই রাস্তায় বন্ধকতা তৈরি করে রাখে জানে আলম ও তার পরিবার তিনি আরো বলেন স্থানীয় মেম্বার কয়েকদিন ধরে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করা হলেও জানে আলম জানান কোনদিনও এ রাস্তা দিয়ে আব্দুল করিমের পরিবারকে চলতে দেবেন না, দুর্গাপুর ওয়ার্ডের মেম্বার জানান  মাঝে মাঝেই কাটা ও পাটখড়ির বেড়া দিয়ে এ রাস্তা বন্ধ করে দিয়ে ঝগড়াঝাঁটি করেন জানে আলমের পরিবার এবং আব্দুল করিমের পরিবার কিন্তু দুইটা পরিবারকে বিভিন্ন সময় সমাধানের চেষ্টা করা হলেও জানে আলমের পরিবার কিছুতেই সমাধান করতে রাজি হয়নি। বিষয়টি অত্র ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কাছেও আব্দুল করিমের পরিবার জানিয়েছেন তিনি তেমন কোনো পদক্ষেপ নেননি আব্দুল করিম আমাদেরকে বলেন। এক সপ্তাহ পর পর এই রাস্তা কাঁটাতারের বেড়া অথবা পাট খড়ির বেড়া দিয়ে তাদের বাড়ি থেকে বের হওয়া বন্ধ করে দেন জানে আলম ও তার পরিবার বিষয়টি অনেক দুঃখজনক বলেও তিনি মন্তব্য করেন তিনি বলেন আমি জানি আলম ও তার পরিবারকে বিভিন্ন সময় বলেছি যে টাকার বিনিময়ে হলেও আমার বাড়ি থেকে বের হওয়ার এই রাস্তা টুকু সে যেন বন্ধ না করে এমনকি আমি তাদেরকে দুই শতাংশ জমি লিখে দিতে চেয়েছি কিন্তু জানে আলম ও তার পরিবার তারা বলেন যে এখানে তাদেরকে বসবাস করতে দেয়া হবে না এবং বিভিন্ন সময় আমার পরিবারকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে যাচ্ছেন জানে আলম ও তার পরিবার উক্ত বিষয়টি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সহ আওয়ামী লীগের দায়িত্বে থাকা জেলাও উপজেলা সকল নেতৃবর্গ কে বিষয়টি সমাধানের জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ কর্মী করিম প্রমানিক

সম্পূর্ণ লেখাটি পড়ুন

এই ধরনের সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close