চাটমোহরপাবনা

চাটমোহরের সন্তান; অভিনেত্রী শাহনাজ খুশি দূর্ঘটনার শিকার!

আহসান হাবীব আলিফ

পাবনার চাটমোহর এর “কৃতি সন্তান” অভিনেত্রী “শাহনাজ খুশি” সড়ক দুর্ঘটনার শিকার হয়েছে।

আজ ১৭ জুলাই রোজ শনিবার চার মাস পর শ্যুটিং এর উদ্দেশ্যে রওনা হলে তার নিজস্ব মাইক্রোবাস দূর্ঘটনার কবলে পরে। তবে তিনি সুস্থ আছেন। শাহনাজ খুশি তার ফেসবুক পেজে এমনটাই বলেছেন।

শাহনাজ খুশির ফেসবুক পেজের পোস্ট আপনাদের মাঝে তুলে ধরা হলো,

চার মাস পর করোনার মধ্যে প্রথম শুটিং এ যাচ্ছি,খারাপ লাগা নিয়ে পরশু এমন একটা পোষ্ট দিয়েছিলাম।নাহ,আমাকে অদৃশ্য করোনা এখনো ছোঁয়নি,আমাকে মৃত্যুর দুয়ারে নিয়েছিল!এই গাড়ীর মধ্যে আমি ছিলাম!!! একেবারেই অলৌকিক কিছু না হলে আমার বাঁচার কথা নয়! আমি এখনো বিশ্বাস করতে পারছি না যে আমি বেঁচে আছি,ভাল আছি! কত বড় অরাজকতার মধ্যে আমরা বাস করছি,তা ভুক্তভুগি সবাই জানি।আজ স্বাস্থ্যখাত সামনে এসেছে বলে,শাহেদদের মত অসংখ্য অসংখ্য কালপিট সামনে আসছে,পরিবহন খাতটা দীর্ঘকাল হলই এমন! প্রতিদিন এমন অসংখ্য দুর্ঘটনায় শেষ হচ্ছে হাজারো পরিবার,খালি হচ্ছে মায়ের কোল,সন্তানের বুক! কিন্তু কোন প্রতিকার নেই।

স্বাস্থ্যখাতের চেয়েও আরও দুর্গম/অন্ধকার/অন্যায়ে ঠাসা এ পরিবহনখাত! ছবিতে যে বিশাল আকারের কার্গো,এটিই গাড়ীর উপর ওঠেছে,ঠেলে নিয়ে পেছনে থামা ট্রাকের সাথে চেপে ধরছে,সেটি চালাচ্ছিল হেলপার,বয়স ১৬/১৭।ড্রাইভার যিনি,উনিও তাই।গুরুত্বপুর্ন কথা হল,উনার কোন লাইসেন্স নাই!!! এমন নাকি চলে,কেন সমস্যা হয় না! আমি আসলে পুরা সেন্সে ছিলাম না,কিছু কিছু কথা আমি ভুলতে পারছি না!!পুবাইল পুলিশ/আমার শুটিং এর ছেলেরা/আমার বাসার মানুষ সবাই চলে এসেছে।আমি তখন থর কম্প একটা মাংস পিন্ড কেবল।কেউ একজন ক্ষতিপুরনের কথা বলায় ড্রাইভার বলছে,”মানুষ মাইরালায় ট্যাহা লাগে না,বাঁইচ্যা আছে,তাও ট্যাহা লাগবো!!!!!!!

সম্পূর্ণ লেখাটি পড়ুন

এই ধরনের সংবাদ

একটি মন্তব্য

  1. বড় কিছু হয় নাই তাই অনেক। করোনার খবর গুলো দেন।চাটমোহরে বা পাবনাতে কতজন আক্রান্ত হলো,সুস্থ হলো এইগুলা বেশি করে দেন নিয়মিত।প্লিয।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close